অংশীজন সভায় দ্রুত ই-কমার্স নির্দেশনা বাস্তবায়নের তাগিদ

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ডিজিটাল কমার্স নির্দেশিকা-২০২১ চূড়ান্তকরণে সোমবার অংশীজনদের এক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ। জুম অনলাইনে সভা পরিচালনা করেন ডব্লিও টিও সেল এর মহাপরিচালক ও বাণিজ্য মন্ত্রণাণয়ের অতিরিক্ত সচিব হাফিজুর রহমান। ডিজিটাল কর্মার্স পলিসি ২০১৮ এর ৩.৩.৬ ধারা অনুসারে উক্ত নির্দেশিকা প্রণয়ন এর কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

চলতি বছর মার্চ মাসে ডিজিটাল কমার্স নির্দেশিকা-২০২১ এর খসড়া প্রনয়ন করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। গত ২০ মার্চ সরকারী বিভিন্ন এজেন্সির মতামত সমন্বয় করে একটি সভার মাধ্যমে অংশীজনদের মতামত নেয়া হয়। মতামতসমূহ সংযুক্ত করে গত ২১ জুন সকাল ১০টায় অনলাইনে উক্ত সভা য়োজন করা হয়। এতে ই-ক্যাবের পক্ষ থেকে ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন ই-ক্যাবের প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার।

প্রধান অতিথি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে ডিজিটাল কমার্স নির্দেশিকা চূড়ান্ত ঘোষনা করতে চায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, সেজন্য অংশীজনদের মতামত প্রয়োজন। এই নির্দেশিকা প্রতিপালন করলে ই-কমার্স সেক্টরে সমস্যা অনেকাংশে কমে যাবে।

ই-ক্যাব সভাপতি বলেন, দ্রুত ই-কমার্স নির্দেশনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা দরকার। এই নির্দেশনাকে পরবর্তী পর্যায়ে আইনে পরিণত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার অনুরোধ জানান তিনি।

ই-ক্যাবের জেনারেল সেক্রেটারী মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, ‘দ্রুত ডিজিটাল কমার্স নির্দেশিকা বাস্তবায়নের স্বার্থে সংশ্লিষ্ঠ পক্ষসমূহকে নিয়ে আলোচনায় বসা দরকার। এবং এটি চূড়ান্ত করে ঘোষনা ও বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে এই সেক্টরে শৃংখলা প্রতিষ্ঠা করা জরুরী হয়ে পড়েছে’। এই এসওপি বাস্তবায়নে ই-ক্যাবের পক্ষ থেকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।
ই-ক্যাবের সহ-সভাপতি সাহাব উদ্দিন শিপন, সহ সম্পাদক নাসিমা আক্তার নিশা, ডিরেক্টর আশীষ চক্রবর্তী, ডিরেক্টর সাইদ রহমান, ডিরেক্টর জিয়া আশরাফ, ডিরেক্টর আসিফ আহনাফ, জেনারেল ম্যানেজার জাহাঙ্গীর আলম শোভন, ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মাহমুদ উর রহমান এইসময় উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া সভায় বাংলাদেশ ব্যাংক, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন, আইসিটি ডিভিশনসহ অন্যান্য দপ্তরের প্রতিনিধিরা আলোচনায় অংশ নেন। ইতিপূর্বে বাংলাদেশ ডাক বিভাগসহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের মতামত এতে যুক্ত করা হয়।

ই-ক্যাবের পক্ষ থেকে দ্রুত নির্দেশিকা প্রজ্ঞাপন আকারে প্রকাশ করার তাগিদ দেয়া হয়। এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এটি যথাসম্ভব দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রকাশ করার ব্যাপারে আশ্বাস দেয়া হয়।